Luminous, A Fleck O’ Caress

On March 23, 2016 by admin

d

Dipanwita Sarkar

_________________

 

One

yellow, tri-cornered fruit. and contaminated all evenings. your garland-chandan

on my palm, cherished melodies, eddies dragging like ma’s breasts…over the close-fisted

yamuna, through paradise-thickets, pray, who had let them in! to

their coition i stand more luminous, a fleck o’ caress.

dipanwita

Two

i be a point. clasp i a point. throbbing firefly i clutch that pious godly-feet on my breast

and my tongue exposed, laugh out hoary. mattress and swimming glide in unison

by the oars of dimming light. dawning night now side-sleep, now turn over

tummy-hunched. come let us commence afresh at midnight.

 b

Three

whirlwind, whirlwind, whirlwind, on the trail frenzied finger  like lance piercings .does

vagina mean birth then? knowing this import, this cataclysm my wench life rambles. and

she becomes ma, my birth as ma. such a lotus-hatch floods in a tri-embrace

a

Four

on plaits mine i have fettered him, you know? by the neighboring shadows of the bamboo-grove

have i enchained him. like the din of my dense forest leaves, he glows in drums and chimes.

adorned as kuhu-moni I shall send him off to a wedge of swans. the colour of water,

through his dip-dip-dip ululates the day. incarnadine in the hues of phag-sindoor, the harikirtan

sways and sways .the sharp nails and tooth his rai-besh unfurl. his…

c

Five

now, with rai-kamala’s body let me a trestle build. weave a merry-coronal of

sondol-buds. on her distracted chins his play, and in her riotous-bacchanalian

ripples try your luck in plucking foliage verdant, what else! reap with care and in the late-night

drip-pond melds she her odorous-thighs. atop an aqueous-pungent kalmi-tip

stands probed a birthing-portal. drifting drifting drifting in some long-ago washed-away time,

to a dream of snakes-encoupled i awaken

 

***

উজ্জ্বল এক স্পর্শবিন্দু

 

এক

 

হলুদ তিনকোনা ফল | আর এঁটো সমস্ত বিকেল, তোমাদের মালাচন্দন

আমার হাতের তালুতে, রাখা গান, ছলাৎ-ছলাৎ মায়ের বুকের মত…হাতে

রাখা যমুনা এবং নিধুবনের দরজা খুলে ঢুকতে দিয়েছে কারা  | আমি

ওদের সংগমের কাছে  আরও উজ্জ্বল এক স্পর্শবিন্দু

 

দুই

 

বিন্দু হই | বিন্দু ধরি |  জোনাকি দপদপ আমি শ্রীচরণকমলখানি  বুকে নিই

ও জিভ বার করে হাসি | বিছানা ও সাঁতার একযোগে বইতে থাকে

টিমটিমে বাতির দাঁড়  | ভোর হওয়া রাত তুমি এবার কাট হও, উপুড়

হও, এসো আবার মাঝরাত থেকে শুরু করি |

 

তিন

 

ঘূর্ণি ঘূর্ণি ঘূর্ণি পথে এলোমেলোভাবে আঙুল বর্শার মত বিঁধেছে | যোনি

মানে জন্ম তবে ? এই অর্থ ও অনর্থ বুঝে আমার মাগিজন্ম কাটে | আর

সে হয় মা… মা জন্ম আমার | এমন পদ্ম মুখ ভেসে যায়ে ত্রিবেনী-সংগমে |

 

চার

 

বিনুনিতে তাকে বেঁধেছি জানো ? বাঁশঝাড়ের ছায়ার পাশে তাকে বেঁধেছি |

সে আমার ঘন বন পাতার শব্দের মত খোলে ও মাদলে রূপ খোলে |

কুহুমনি বেশে তাকে পাঠাব রাজহংসীর দলে |  জলের রং তার স্নানে

স্নানে উলু হয় দিন | রাঙা ফাগের শাঁখ সিঁদুরের পালায় হরিকীর্তন দোলে

আর দোলে | নখে ও দাঁতের ধরে আমি চিনে ফেলি রাইবেশ | তার…

 

পাঁচ

 

এবে রাই-কমলার দেহ নিয়ে একটা সাঁকো গড়ি | গড়ি সে সোদল ফুলের

মালা | আনমনা চিবুক তার খেলা তার মদিল মদিল ঢেউ নিয়ে তুমি

শাঁকপাতা তল আর কি | বসে বসে বাছো আর সে শেষ রাত্রির

টুপটাপ জলে মেশাক উরুগন্ধ, আঠালো ঝাঁঝালো কলমিডগার ওপর

গেঁথে গেছে এক জন্মদ্বার | ভেসে গেছে কোন অবেলায় যেতে যেতে

যেতে আমি জোড় লাগা সাপের স্বপ্নে জেগে উঠি

 

 

 

dipa

____________________________

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *